৩০ লাখ শহীদ স্মরণে ৩০ লাখ তালগাছ!

একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের স্মরণে ৩০ লাখ তালগাছের চারা রোপণের উদ্যোগ নিয়েছেন বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষিপদক (স্বর্ণ) প্রাপ্ত কৃষক দম্পতি সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ ও বেলি বেগম

সেলিম সরদার, ঈশ্বরদী// একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের স্মরণে ৩০ লাখ তালগাছের চারা রোপণের উদ্যোগ নিয়েছেন বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষিপদক (স্বর্ণ) প্রাপ্ত কৃষক দম্পতি সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ ও বেলি বেগম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের এ সংক্রান্ত লিখিত আবেদন পাওয়ার পর এ উদ্যোগে স্বাগত জানিয়েছেন। চারা রোপণের উদ্বোধন করতে মৌখিক সম্মতিও জ্ঞাপন করেছেন তিনি। পরিকল্পনা অনুযায়ী, প্রতিবছর ৬ লাখ তালগাছের চারা রোপণ করা হবে। আগামী ৫ বছরের মধ্যে সারাদেশে রোপণ করা হবে ৩০ লাখ চারা। যার সূচনা হবে ঈশ্বরদী থেকে।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃষক দম্পতির এ আবেদনের পর গত মঙ্গলবার গাছ রোপণ করার আনুষ্ঠানিক অনুমতি চেয়ে বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ ও সাধারণ সম্পাদক আবদুুল জলিল কিতাব মণ্ডল রেলপথ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন। এ উদ্যোগে সহায়তা করতে বাংলাদেশ সুগারক্রপ রিসার্চ ইনস্টিটিউট (বিএসআরআই) কর্তৃপক্ষ ও ঈশ্বরদী কৃষি বিভাগও সম্মত হয়েছে। বিএসআরআই’র মহাপরিচালক ড. আমজাদ হোসেন সরেজমিন তালবীজ সংরক্ষণ এলাকা পরিদর্শন করেছেন। ইতিমধ্যে পাঁচ লাখ তালবীজ ও চারা সংগ্রহ করা হয়েছে। ১০ ফুট পরপর এগুলো রোপণ করা হবে। কৃষক ময়েজ জানান, নির্মাণাধীন ঈশ্বরদী-পাবনা-ঢালারচর পর্যন্ত ৬০ কিলোমিটার দীর্ঘ রেললাইনের দুই ধারে এই চারা রোপণ করা হবে।

ঈশ্বরদীর কৃষক সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ ২০১০ সালে ও তার স্ত্রী বেলি বেগম ২০১৭ সালে কৃষিক্ষেত্রে অবদান রাখার স্বীকৃতি হিসেবে বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষিপদক (স্বর্ণ) পেয়েছেন। দেশের অন্য কোথাও স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই এখনও এ পদক পাননি বলে জানান এই সফল কৃষক দম্পতি।

সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ জানান, বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির উদ্যোগে এই তালগাছের চারা রোপণ কাজে অংশ নেবেন দেশের বিভিন্ন জেলার কৃষকরা। ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানের কৃষকদের সঙ্গে এ নিয়ে মতবিনিময়ও করা হয়েছে।

কৃষক ময়েজ জানান, গত ১৬ জুলাই ঢাকায় বঙ্গবন্ধু কৃষিপদক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তিনি তাদের এ আবেদনপত্র তার হাতে তুলে দেন। এ সময় কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির নেতারাও সঙ্গে ছিলেন।
৩০ লাখ তালের চারার বাজারমূল্য কত এবং কারা এ চারা সরবরাহ করবেন, জানতে চাইলে ময়েজ বলেন, ৩০ লাখ তালগাছের চারার বাজারমূল্য প্রায় দেড় কোটি টাকা। বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির কৃষকরা এই চারা বিনামূল্যে সরবরাহ করবেন। এ ছাড়াও আমরা তালবীজ সংগ্রহের জন্য দেশের বিভিন্ন কৃষি প্রতিষ্ঠান ও সরকারি কৃষি সংস্থাগুলোর কাছে আবেদন করব। ৩০ লাখ তালের চারা সংগ্রহ ছাড়াও চারা রোপণ ও পরিচর্যার জন্যও একটি বিশাল অঙ্কের অর্থ খরচ হবে।

ঈশ্বরদীর বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার (সাংবাদিক, আইনজীবী, কৃষক, চিকিৎসক, জনপ্রতিনিধি) মানুষ ৩০ লাখ চারা রোপণের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে সমকালকে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আমাদের পরিবেশ ও বনজ সম্পদ মারাত্মক হুমকির মুখে। ইদানীং বজ্রপাতেও অনেকের মৃত্যু ঘটছে। তালগাছ বজ্রপাত থেকে মানুষকে রক্ষার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

ঈশ্বরদী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রওশন জামাল ৩০ লাখ শহীদকে স্মরণের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, বিএসআরআই ও ঈশ্বরদী কৃষি বিভাগ এ বিষয়ে সার্বিক সহযোগিতা করছে।

গত মঙ্গলবার বিএসআরআইর মহাপরিচালক ড. আমজাদ হোসেন বলেন, আমরা সরকারিভাবে টেকনিক্যাল সাপোর্ট দিচ্ছি ও এই বিশাল কর্মযজ্ঞে আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

*